গর্ভকালীন সময়ে করণীয়

গর্ভাবস্থায় কমপক্ষে চারবার স্যাটেলাইট ক্লিনিক, কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র, মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র বা সদর হাসপাতালে এসে শারীরিক পরীক্ষা করা অত্যন্ত জরুরি। তবে গর্ভবতী মা যদি কোনো কারণে শারীরিক অসুবিধা বোধ করেন তাহলে যেকোনো সময় উল্লেখিত স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এসে পরিবার পরিকল্পনা কর্মীর পরামর্শ নিতে হবে;

  • প্রথম সাক্ষাতঃ    
  • ৪ মাসের (১৬ সপ্তাহ) মধ্যে
  • দ্বিতীয় সাক্ষাতঃ
  • ৬-৭মাসের মধ্যে (২৪-২৮ সপ্তাহ)
  • তৃতীয় সাক্ষাতঃ  
  • ৮ম মাসে (৩২ সপ্তাহ)
  • চতুর্থ সাক্ষাতঃ    
  • ৯ম মাসে (৩৬ সপ্তাহ)
  • গর্ভধারণের ৪ থেকে ৮ মাসের মধ্যে মাকে দুইডোজ টিটি টিকা নিতেহবে।
  • স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বেশি করে পুষ্টিকর ও সুষম খাবার খেতে হবে (খাবারের তালিকায় সাধ্যমত ফল-মূল, সবুজ শাক-সবজি, ডাল, সীম, মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, ছোট মাছ ইত্যাদি থাকতে হবে)।
  • প্রচুর পরিমাণে বিশুদ্ধ পানি পান করতে হবে ।
  • ভারী কাজ ছাড়া অন্যান্য দৈনন্দিন কাজ-কর্ম করা যাবে ।
  • পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং ঢিলেঢালা পোষাক পড়তে হবে ।
  • দিনের বেলায় কম পক্ষে ২ ঘন্টা বিশ্রাম নিতে হবে ।
  • গর্ভবতী মাকে মানসিক ভাবে শান্তিতে রাখতে হবে ।

বিঃদ্রঃ

গর্ভকালীন সময়ে ভারী কাজ করা থেকে বিরত থাকতে হবে, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন ঔষধ গ্রহন করা যাবে না, দীর্ঘ সময় ক্লান্তিকর ভ্রমন ও ধূমপান করা এবং ছোঁয়াচে রোগীর (হাম, বসন্ত ইত্যাদিতে আক্রান্ত) সংস্পর্শ থেকে দূরে থাকতে হবে ।

তথ্য: 
তথ্য আপা প্রকল্প