সেমাই তৈরি ব্যবসা

সেমাই খুবই সুস্বাদু একটি খাবার। ছোটবড় সবাই সেমাই খেতে পছন্দ করে। আমাদের দেশে বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে ঘরে ঘরে সেমাই রান্না করতে দেখা যায়। বিভিন্ন ধর্মীয় বা সামাজিক উৎসবে খাবার হিসেবে সেমাই-এর ব্যবহার রয়েছে। গ্রাম বা শহর সব জায়গাতেই ছোটবড় সবার কাছে সেমাই-এর কদর রয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেশে উন্নতমানের সেমাই তৈরি হচ্ছে এবং এগুলো বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করাও সম্ভব হচ্ছে।
সেমাই খুবই সুস্বাদু একটি খাবার। ছোট বড় সবাই সেমাই খেতে পছন্দ করেন। আমাদের দেশে বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে ঘরে ঘরে সেমাই রান্না করতে দেখা যায়। সেমাই তৈরি ব্যবসার মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তি নিজের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেন।

বাজার সম্ভাবনা
উপমহাদেশে সেমাই খুব জনপ্রিয় একটি খাবার। বিভিন্ন ধর্মীয় বা সামাজিক উৎসবে খাবার হিসেবে সেমাই এর ব্যবহার রয়েছে। গ্রাম বা শহর সব জায়গাতেই ছোট বড় সবার কাছে সেমাই এর কদর রয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেশে উন্নত মানের সেমাই তৈরি হচ্ছে এবং এগুলো বিদেশে রপ্তানী করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করাও সম্ভব হচ্ছে।

মূলধন
আনুমানিক ২২০০০-২৫০০০ টাকা মূলধন নিয়ে সেমাই তৈরির ব্যবসা শুরু করা সম্ভব। সেমাই তৈরির ব্যবসা শুরু করার জন্য যদি প্রয়োজনীয় পুঁজি না থাকে তবে ঋণদানকারী ব্যাংক (সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক) বা বেসরকারী প্রতিষ্ঠান (আশা, গ্রামীণ ব্যাংক, ব্রাক, প্রশিকা) থেকে শর্ত সাপেক্ষে স্বল্প সুদে ঋণ নেয়া যেতে পারে। বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ ব্যবসায় ঋণ দিয়ে থাকে।

প্রশিক্ষণ
সেমাই তৈরি শেখার জন্য কোন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নেবার প্রয়োজন নেই। তবে এ ব্যবসার সাথে জড়িত এমন কোন অভিজ্ঞ ব্যক্তির কাছ থেকে ধারণা নেওয়া যেতে পারে।

প্রয়োজনীয় উপকরণ, পরিমাণ, মূল্য ও প্রাপ্তিস্থান

স্থায়ী উপকরণ 

উপকরণ

পরিমাণ

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

সেমাই মেশিন

১টি

১৮০০০-২০০০০

যন্ত্রপাতি বিক্রির দোকান

ফিতা/ বেল্ট

১টি

২০০-২১০

হার্ডওয়ারের দোকান

চাকতি

৩টি

২৯০-৩০০

হার্ডওয়ারের দোকান

বিয়ারিং

২টি

৩৫০-৩৬০

হার্ডওয়ারের দোকান

ড্রাম

১টি

৪৫০-৪৬০

হার্ডওয়ারের দোকান

মগ

২টি

৩০-৩৫

তৈজসপত্রের দোকান

বস্তা (বায়ুনিরোধক)

৫টি

৫০-৬০

হার্ডওয়ারের দোকান

মোট খরচ=১৯৩২০-২১৩৬৫ টাকা

কাঁচামাল 

উপকরণ

 পরিমাণ 

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

ময়দা

৫০ কেজি

১৪৫০-১৫০০

গম ভাঙ্গিয়ে ময়দা তৈরি

জাফরং

২৫০ গ্রাম

২০-২৫

মুদি দোকান

পানি

পরিমাণমত

----------

-------

মোট খরচ=১৪৭০-১৫২৫ টাকা

সেমাই তৈরির নিয়ম
১ম ধাপ
বড় একটি পাত্রে নিদির্ষ্ট পরিমাণ ময়দা নিয়ে এর সাথে জাফরং মিশাতে হবে এবং এবার পরিমাণমত পানি মিশিয়ে মাখতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন বেশি নরম হয়ে না যায়।
২য় ধাপ
পানি মিশানোর পর খামির ভালভাবে মাখাতে হবে যেন কোথাও ময়দার দলা না থাকে। মাখানো শেষ হলে মেশিনের মধ্যে খামির ঢেলে মেশিন চালাতে হবে, এর ফলে মেশিনের চাকতি দিয়ে চিকন চিকন ময়দা বের হবে।
৩য় ধাপ
বের হওয়া সেমাই লম্বা লম্বা করে কেটে রোদে শুকাতে দিতে হবে। সেমাই শুকানোর পর তা নিদির্ষ্ট পরিমাণ মেপে মেপে প্যাকেটজাত করতে হবে।
আনুমানিক আয় ও লাভের পরিমাণ

খরচ  

স্থায়ী যন্ত্রপাতির অবচয় (ক্ষতি) বাবদ

৩০-৩৫ টাকা

কাঁচামাল ক্রয় বাবদ খরচ

১৪৭০-১৫২৫ টাকা

প্যাকেজিং বাবদ খরচ

১৮০-২০০ টাকা

অন্যান্য বাবদ খরচ

৯০-১০০ টাকা

মোট খরচ=১৭৭০-১৮৬০টাকা

 

আয় 

৫০ কেজি ময়দা থেকে প্রায় ৭০ কেজি সেমাই তৈরি করা সম্ভব। 

১ কেজি সেমাই বিক্রিতে আয়=৩৮-৪০ টাকা

৭০ কেজি সেমাই বিক্রিতে আয়=২৬৬০-২৮০০ টাকা

 

লাভ 

৭০ কেজি সেমাই বিক্রিতে আয়

২৬৬০-২৮০০ টাকা

৭০ কেজি সেমাই তৈরিতে খরচ

১৭৭০-১৮৬০ টাকা

লাভ=৮৯০-৯৪০ টাকা

অর্থাৎ ৮৯০-৯৪০ টাকা লাভ করা সম্ভব। তবে সময়ভেদে লাভের পরিমাণ কম বা বেশি হতে পারে

স্থায়ী উপকরণগুলো একবার কিনলে অনেকদিন ধরে কাজ করা যাবে। ব্যবসার শুরুতেই এ খরচটি করতে পারলে পরবর্তীতে শুধু কাঁচামাল কিনে ব্যবসা চালিয়ে নেওয়া সম্ভব।

তথ্য: 
তথ্য আপা প্রকল্প