বই বাঁধানো

ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্পকারখানা, অফিস-আদালত, ব্যাংক সবখানেই হিসাবের খাতাসহ নানান ধরনের বই ও প্রকাশনা সামগ্রীর প্রয়োজন হয়। এসব প্রকাশনাগুলোকে সুন্দর ও মজবুত করার জন্য বাঁধাই করার প্রয়োজন হয়। বই বাঁধাই না করলে এটি সহজে ছিঁড়ে যায়। মোটামুটি সব মৌসুমেই বই ও খাতা বাঁধানোর কাজ চলে। বই বাঁধানো শিখে যে কোনো ব্যক্তি সহজে এ ব্যবসা শুরু করতে পারেন।
জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে দেশে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বই-পুস্তক, খাতা, কলমের চাহিদা তাই দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশ এগিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে দেশে অফিস আদালত, ব্যবসা বাণিজ্য ও এর সংশ্লিষ্ট দপ্তরও বাড়ছে। এসব ব্যবসা বাণিজ্য, শিল্প কারখানা, অফিস আদালত, ব্যাংক সবখানেই হিসাবের খাতাসহ নানান ধরণের বই ও প্রকাশনা সামগ্রীর প্রয়োজন হয়। এসব প্রকাশনাগুলোকে সুন্দর ও মজুবত করার জন্য বাঁধাই করার প্রয়োজন হয়। বই বাঁধাই না করলে এটি সহজে ছিঁড়ে যায়। মোটামুটি সব মৌসুমেই বই ও খাতা বাঁধানোর কাজ চলে। বই বাঁধানো শিখে যে কোন ব্যক্তি সহজে এ ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

বাজার সম্ভাবনা
ভোক্তার চাহিদা মতো অর্ডার নিয়ে প্রয়োজনীয় বই, খাতা, বাঁধিয়ে দিয়ে এর বিনিময়ে মজুরি নেওয়া হয়। সাধারণত ছাত্র-ছাত্রীরাই বেশি বই, খাতা বাঁধায়। ছাপাখানা বা প্রকাশনা কর্তৃক অর্ডার অনুযায়ী তাদের বই, খাতা-পত্র, রেজিষ্টার ইত্যাদি বাঁধানোর কাজ করা যায়। এছাড়া প্রয়োজনীয় কাঁচামাল সংগ্রহ করে তা দিয়ে নিজেরাই বিভিন্ন উপকরণ তৈরি করে বাজারে বিক্রি করা যায়। যেমন: বিভিন্ন ধরণের রেজিষ্টার, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য লেখার খাতা, ব্যবহারিক খাতা, অফিস ফাইল, ফাইল বোর্ড, প্যাকেট, বিভিন্ন মাপের খাম ইত্যাদি।

মূলধন
অর্ডারি বই বাঁধানো ব্যবসা শুরুর জন্য প্রায় ২০০-২৩৭ টাকার স্থায়ী উপকরণ কিনতে হবে। এছাড়া কাঁচামাল কেনা নির্ভর করে মূলধনের উপর। তবে প্রাথমিকভাবে ৯০-১১০ টাকার মূলধন কিনে ব্যবসা শুরু করা যাবে। যদি ব্যক্তিগত পূঁজি না থাকে তাহলে মূলধন সংগ্রহের জন্য নিকট আত্মীয়স্বজন, ঋণদানকারী ব্যাংক বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (এনজিও)-এর সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে।  এসব সরকারি, বেসরকারি ব্যাংক (সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক) ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (আশা, গ্রামীণ ব্যাংক, ব্রাক, প্রশিকা) শর্ত সাপেক্ষে ঋণ দিয়ে থাকে। নিজে মালামাল কিনে তা বাঁধাই করে বিক্রি করতে চাইলে অন্তত ২৫-৩০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করার প্রয়োজন হবে।
 
প্রশিক্ষণ
বই বাঁধানোর কাজ শুরুর আগে কিছুদিন কোন দক্ষ কারিগরের কাছ থেকে কাজটা শিখে নিতে হবে। এছাড়া অভিজ্ঞ কারোও কাছে থেকে এ ব্যবসা সম্পর্কে  বিস্তারিত জেনে নিলে ব্যবসা করতে সুবিধা হবে।

প্রয়োজনীয় উপকরণ, পরিমাণ, মূল্য ও প্রাপ্তিস্থান
স্থায়ী উপকরণ (অর্ডার নিয়ে কাজ করার জন্য)

 

উপকরণ

পরিমাণ

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

ধারালো ছুরি

১ টি

৩০-৩৫

হার্ডওয়ারের দোকান

কাঁচি

১টি

৪০-৫০

হার্ডওয়ারের দোকান

স্কেল

১টি

১০-১৫

হার্ডওয়ারের দোকান

কাঠের ফ্রেম

১টি

৫০-৫৫

হার্ডওয়ারের দোকান

সুঁচ ও ভোমর

১টি

১০-১২

হার্ডওয়ারের দোকান

হাতুড়ি

১টি

৬০-৭০

হার্ডওয়ারের দোকান

মোট খরচ=২০০-২৩৭ টাকা

কাঁচামাল (প্রতি সপ্তাহে)

উপকরণ

পরিমাণ

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

আঠা

২০০ গ্রাম

১০-১৫

হার্ডওয়ারের দোকান

কাপড়

১ গজ

৩০-৩৫

হার্ডওয়ারের দোকান

সুতা

১টা

১০-১৫

হার্ডওয়ারের দোকান

রেক্সিন

১ গজ

৪০-৪৫

হার্ডওয়ারের দোকান

মোট খরচ=৯০-১১০ টাকা

কাজের পদ্ধতি

বই বাঁধানো কাজ কয়েকভাবে করা যায়-

  • প্রয়োজনীয় কাঁচামাল সংগ্রহ করে তা দিয়ে নিজেরাই বিভিন্ন পণ্য তৈরি করা যায়। যেমন-বিভিন্ন ধরণের রেজিষ্টার, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের জন্য লেখার খাতা, ব্যবহারিক খাতা, অফিস ফাইল, ফাইল বোর্ড, প্যাকেট, বিভিন্ন মাপের খাম ইত্যাদি।
  • এসব পণ্যসামগ্রী স্থানীয় দোকানে বা জেলা সদরের দোকানে বিক্রির জন্য দেওয়া যাবে অথবা বই বাঁধানোর কাজের পাশাপাশি নিজেরাই দোকানের একপাশে এসব দ্রব্যাদি রেখে পাইকারি বা খুচরা হিসেবে বিক্রি করা যাবে ।
  • কোন ছাপাখানা বা প্রকাশনা কর্তৃক অর্ডার অনুযায়ী তাদের বই, খাতাপত্র, রেজিস্টার খাতা ইত্যাদি বাঁধানোর কাজ করা যাবে। এজন্য কাজে দক্ষতা ও নিপুণতার প্রয়োজন হয়। ভালো কাজ করলে সহজেই বড় প্রতিষ্ঠান থেকে কাজের অর্ডার পাওয়া যাবে।
  • এর পাশাপাশি পুরাতন বইপত্রও অর্ডার অনুযায়ী বাঁধানো যাবে ।
  • বই পুস্তক, খাতাপত্র ইত্যাদি ক্রেতার রুচি বা সামর্থ অনুযায়ী বিভিন্ন পদ্ধতিতে বাঁধানোর ব্যবস্থা থাকলে ভালো। সাধারণত স্কুল কলেজের বইপত্র ক্রেতারা বোর্ড কাপড় বা রেক্সিন দিয়ে বাঁধিয়ে নেয়। তবে সৌখিন ক্রেতারা তাদের বইপত্র চামড়া দিয়েও বাঁধায়।
  • চামড়া, রেক্সিন, কাপড় বা বোর্ড দিয়ে বই বা খাতা বাঁধানোর পর অনেক ক্রেতাই চান তার উপর বই বা প্রতিষ্ঠানের নাম ছাপিয়ে নিতে। তাই কোন প্রেসের সাথে যোগাযোগ করে ক্রেতার পছন্দ ও চাহিদা অনুযায়ী ছাপিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা রাখলে ভালো হবে। এছাড়া বই বাঁধানোর কাজে মোটামুটি সফলতা আসলে নিজেরাই বই বাঁধানো কাজের পাশাপাশি বই খাতার উপরে ছাপানোর জন্য প্রেসের ব্যবসাও শুরু করা যাবে।
  • প্রথমে বাজারে একটু সুনাম ছড়াতে পারলে তখন সহজেই অনেক কাজ পাওয়া যাবে। এছাড়া ক্রেতাদের সাথে ভালো সম্পর্ক রাখলে তারাই তাদের সব ধরণের কাজ একই জায়গা থেকে করাবেন।

বই বাঁধানোর নিয়ম

  • প্রথমে যে বই বাঁধানো হবে তার পৃষ্ঠাগুলোকে নম্বর অনুযায়ী পর পর সাজাতে হবে।
  • তারপর পৃষ্ঠাগুলোকে সমান করে এক জায়গায় রেখে একধারে ভোমর বসিয়ে হাতুড়ির সাহায্যে তিনটা ছিদ্র করে নিতে হবে।
  • এবার ভোমর ও সুতোর সাহায্যে সেলাই করতে হবে। অনেক সময় সেলাই এর পাশাপাশি আঠা ব্যবহার করা হয়। তাতে বই এর পৃষ্ঠা সহজে খুলে না।
  • বইটার যে মলাট দেওয়া হবে তা ঠিক করতে হবে। সাধারণত বিভিন্ন রঙ এর আর্ট পেপার দিয়ে বইয়ে মলাট দেওয়া হয়। বই এর মাপে আর্ট পেপার কেটে বইয়ের উপর ও নীচে আঠা দিয়ে দুই পাশে ভালোভাবে লাগিয়ে নিতে হবে।
  • মাপ মতো রেক্সিন কেটে নিতে হবে। বইয়ের যে পাশে সেলাই দেওয়া হয়েছে; সেই পাশে রেক্সিনে আঠা দিয়ে লাগাতে  হবে। তাহলে বইটা দেখতে সুন্দর হবে।
  • আঠা লাগানো হলে বইটা ভালোভাবে শুকিয়ে নিতে হবে ।
  • সব শেষে ধারালো কাঁচি বা কাটার দিয়ে বই তিন পাশ সমান করে কেটে নিতে হবে ।

সাবধানতা

  • বই বাঁধানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে বইয়ের সব পাতা যেন সমানভাবে কাটা হয়।
  • সেলাই মজবুত না হলে বা আঠা ভালো করে না শুকালে পাতা খুলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • বর্ষাকাল এ ব্যবসার মন্দার সময়। কারণ, রোদের তেজ ভালো না থাকায় আঠা শুকাতে সময় লাগে। তাই এ সময় একটু সময় নিয়ে বাতাসে আঠা শুকাতে হবে।
  • সুঁচ, সুতা, ভোমর, হাতুড়ি, কাটার, কাঁচি ইত্যাদি ব্যবহার করার সময় সাবধান থাকতে হবে যেন হাত না কাটে।

আয় ও লাভের হিসাব

বই বাঁধানোর পর তার মজুরি নিয়ে অর্থ উপার্জন করা যাবে। নিজেরা বিভিন্ন ধরণের খাতা, অফিস ফাইল, ফাইল বোর্ড বিভিন্ন মাপের খাম এরকম বিভিন্ন স্টেশনারি দ্রব্যদি বিক্রয় করে তা থেকে আয় করা সম্ভব।

বই বাঁধানো প্রকল্প থেকে সব খরচ বাদ দিয়ে গড়ে প্রতি মাসে ৪০০০ থেকে ৫০০০ টাকা আয় করা যাবে। বই বাঁধানো ব্যবসা থেকে আয় বিনিয়োগ ও কাজের অর্ডারের উপর নির্ভর করে। এছাড়া মূলত স্থানভেদে আয়ের তারতম্য হয়। অনেক সময় জিনিসপত্রের দাম উঠানামা করে। তাই এ ক্ষেত্রে হিসাব শুধুমাত্র ধারণা দেওয়ার জন্য। নিজেদের মতো কম দামে স্থায়ী ও অস্থায়ী জিনিসপত্র কিনেও বই বাঁধানোর প্রকল্প শুরু করা সম্ভব।

সারাবছরই এই বাঁধানোর কাজ চলে। স্কুল, কলেজের কাছাকাছি বা বাজারের বই বাঁধানো কাজের দোকান দিলে ব্যবসা ভালো চলবে।

তথ্য: 
তথ্য আপা প্রকল্প