আমসত্ত্ব তৈরি ব্যবসা

আমসত্ত্ব তৈরি

খোসা ছাড়ানো পাকা আম চিপে রস বের করে সেটা রোদে শুকিয়ে আমসত্ত্ব তৈরি করা হয়। গ্রীষ্মকালে আমের মৌসুমে মেয়েরা অন্যান্য কাজের পর পাকা আম থেকে আসমত্ত্ব তৈরি করে পরিবারের খাওয়ার পাশাপাশি বিক্রি করে বাড়তি আয় করতে পারেন।

বাজার সম্ভাবনা

আম খুবই সুস্বাদু একটি ফল কিন্তু কেবল একটি নির্দিষ্ট সময়েই আম পাওয়া যায়। আমসত্ত্বের মাধ্যমে সারা বছরই আমের স্বাদ পাওয়া যায়। ছোট বড় সবার কাছেই আমসত্ত্ব খুব প্রিয় একটি খাবার। বৈজ্ঞানিক উপায়ে আমসত্ত্ব তৈরি করতে পারলে এর স্বাদ ও গন্ধ বজায় থাকে এবং খেতেও সুস্বাদু হয়। আমসত্ত্বের ব্যবসা করে যে কোন ব্যক্তি সংসারের বাড়তি  আয় করতে পারেন।

প্রয়োজনীয় মূলধন

আনুমানিক ৮০০-১০০০ টাকা মূলধন নিয়ে আমসত্ত্ব তৈরির ব্যবসা শুরু করা সম্ভব। বড় আকারে আমসত্ত্ব তৈরির ব্যবসা করতে নিজের কাছে যদি প্রয়োজনীয় পুঁজি না থাকে তবে ঋণদানকারী ব্যাংক (সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক), বেসরকারী ব্যাংক বা বেসরকারী প্রতিষ্ঠান (আশা, গ্রামীণ ব্যাংক, ব্রাক, প্রশিকা) থেকে শর্ত সাপেক্ষে স্বল্প সুদে ঋণ নেয়া যেতে পারে।

 

ব্যাংকঃ

সোনালী ব্যাংকঃ http://www.sonalibank.com.bd/

জনতা ব্যাংকঃ http://www.janatabank-bd.com/

রূপালী ব্যাংকঃ http://www.rupalibank.org/rblnew/

অগ্রণী ব্যাংকঃ http://www.agranibank.org/

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকঃ www.krishibank.org.bd/

 

এনজিও

আশাঃ http://asa.org.bd/

গ্রামীণ ব্যাংকঃ http://www.grameen-info.org/

ব্রাকঃ http://www.brac.net/

প্রশিকাঃ http://www.proshika.org/

আনুমানিক আয়-ব্যয় লাভের পরিমাণ

খরচ  

স্থায়ী যন্ত্রপাতির অবচয় (ক্ষতি) বাবদ খরচ

-৩ টাকা

কাঁচামাল বাবদ খরচ

১৯৪-২০৫ টাকা

মোট=১৯৬-২০৮টাকা

 

আয় লাভ

উপরোক্ত উপকরণ দিয়ে যে আমসত্ত্ব তৈরি হয় তার বাজার মূল্য ২৫০-২৫৫ টাকা। সে হিসেবে লাভ হয় ৫৪-৪৭ টাকা। তবে সময় ও স্থানভেদে এর কম বা বেশি লাভ হতে পারে। 

আমসত্ত্ব তৈরির স্থায়ী উপকরণগুলো সব বাড়িতেই থাকে। আম পাকা মৌসুমে আমসত্ত্ব তৈরি করে সার বছর ধরেই বিক্রি করা সম্ভব।

প্রয়োজনীয় উপকরণ, পরিমাণ, মূল্য প্রাপ্তিস্থান

আমসত্ব তৈরির প্রয়োজনীয় উপকরণ খুবই সহজলভ্য। প্রযোজনীয় উপকরণ ছকে দেওয়া হলো:

স্থায়ী উপকরণ 

উপকরণ

পরিমাণ

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

প্লাস্টিকের গামলা (বড়)

১টি

১৫০-১৬০

তৈজসপত্রের দোকান

ছুরি

১টি

৩৫-৪০

তৈজসপত্রের দোকান

বাঁশের চালুনী (বড়)

১টি

৩৫-৪০

বাঁশের পণ্যের দোকান

মোট=২২০-২৪০ টাকা

 

কাঁচামাল

উপকরণ

 পরিমাণ

আনুমানিক মূল্য (টাকা)

প্রাপ্তিস্থান

পাকা আম

৩ কেজি

১৪৫-১৫০

ফলের দোকান

চিনি

৩০০ গ্রাম

১৮-২০

মুদি দোকান

সরিষার তেল

২০ গ্রাম

২৬-২৮

মুদি দোকান

পটাশিয়াম মেটা বাইসালফাইট

২ গ্রাম

-

ফার্মেসী

সাইট্রিক এসিড

.৭৫ গ্রাম

-

ফার্মেসী

মোট=১৯৪-২০৫ টাকা

আমসত্ত্ব তৈরির নিয়ম

১ম ধাপ

পাকা  আম বেছে নিয়ে সেগুলোর খোসা ছাড়িয়ে পরিস্কার হাতে আমগুলো চিপে রস বের করতে হবে। এরপর বাঁশের চালুনীর মাধ্যমে ছেঁকে নিতে হবে যেন আমের আঁশগুলো না থাকে।

২য় ধাপ

আমসত্ত্বের রং বেশি দিন ভালো রাখার জন্য আমের রসটুকু ৩ মিনিট তাপ দিতে হবে। চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা হলে রসের মধ্যে সামান্য চিনি ও সাইট্রিক এসিড মিশাতে হবে।

৩য় ধাপ

এবার আবার ৫মিনিট হালকা তাপে জ্বাল দিতে হবে।

৪র্থ ধাপ

এর পর বাঁশের ডালা পরিস্কার করে সেটিতে সরিষার তেল মাখিয়ে ৮-১০ দিন রোদে শুকাতে হবে। রোদে শুকানোর সময় পাতলা জাল দিয়ে ঢেকে দিতে হবে।

৫ম ধাপ

এক স্তর শুকালে তার উপর আরেক  স্তর দিতে হবে। সবকয়টি স্তর ভালভাবে শুকালে ডালা থেকে আমসত্ত্ব তুলে সরিষার তেল মাখিয়ে নির্দিষ্ট সাইজে কেটে প্যাকেট করতে হবে।

প্রশিক্ষণ

আমসত্ত্ব তৈরি শেখার জন্য তেমন কোন প্রশিক্ষণের প্রয়োজন নেই। তবে বৈজ্ঞানিক উপায়ে আমসত্ত্ব তৈরির জন্য অভিজ্ঞ কারো কাছ থেকে ধারণা নেয়া যেতে পারে।

প্রশিক্ষন প্রদানকারী সংস্থা:

ব্রাকঃ http://www.brac.net/

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরঃ www.dyd.gov.bd

বিসিকঃ http://www.bscic.gov.bd/

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরঃ http://www.dwa.gov.bd/

তথ্য: 
তথ্য আপা প্রকল্প